বাবার কবরে শেষ ঘুমে তাজিন আহমেদ

‌মো: জা‌হিদুল ইসলাম: সকালে কাশিমপুর কারাগারে মাকে দেখানোর পর তাজিনের মরদেহ নিয়ে আসা হয় গুলশানের আজাদ মসজিদে। সেখানে জানাজা শেষে বিকাল পৌনে ৩টা দিকে তাকে বনানীর কবরস্থানে তার বাবার কবরে দাফন করা হয়।

নাট্য নির্মাতা চয়নিকা চৌধুরী ও অভিনয় শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক এস এ হক অলিক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, জানাজার সময় তাজিনের সহকর্মী অভিনেতা ও অভিনেত্রীরা উপস্থিত ছিলেন।

তাদের মধ্যে এসেছিলেন রামেন্দু মজুমদার, ত্রপা মজুমদার, শহিদুল আলম সাচ্চু, সুবর্ণা মুস্তাফা, বদরুল আনাম সৌদ, শমী কায়সার, ফজলুর রহমান বাবু, মাসুম রেজা, অমিতাভ রেজা চৌধুরী, তানভীন সুইটি, রোজী সিদ্দিকী, নওশীন, রোকেয়া প্রাচী, বিপাশা হায়াত, তমালিকা কর্মকার, রওনক হাসান, আহসান হাবিব নাসিম, লিটু আনাম, বিজরী বরকতউল্লাহ, ইন্তেখাব দিনারসহ আরো অনেকে।

অভিনয় শিল্পী সংঘ জানিয়েছে, শুক্রবার বিকাল ৪টায় তাদের কার্যালয়ে তাজিন আহমেদ স্মরণসভা অনুষ্ঠিত হবে।

মঙ্গলবার হার্ট অ্যাটাক হলে তাজিন আহমেদকে ঢাকার উত্তরার রিজেন্ট হাসপাতালে নেওয়া হয়; কিন্তু চিকিৎসকরা চেষ্টা চালিয়েও তাকে বাঁচাতে পারেননি।

গত শতকের নব্বইয়ের দশকের মাঝামাঝিতে টিভি অভিনেত্রী হিসেবে পরিচিতি পাওয়া তাজিন পরে উপস্থাপক হিসেবেও সুনাম কুড়ান। মাত্র ৪৫ বছর বয়সে তার এই মৃত্যু মানতে পারছেন না তার সহকর্মীরা।

তাজিনের পৈত্রিক বাড়ি নোয়াখালীতে হলেও তার বেড়ে ওঠা পাবনায় নানা বাড়িতে। মা দিলারা জলির প্রোডাকশন হাউজ ছিল। মায়ের হাত ধরেই অভিনয় জগতে প্রবেশ তাজিনের।