দুই ঘণ্টার বেশি টিভি দেখলে হার্ট অ্যাটাক বা স্ট্রোকের ঝুঁকি, গবেষণা

লাইফস্টাইল ডেস্কঃ বর্তমানে করোনাভাইরাসের কারণে ঘরবন্দী হয়েছেন বিশ্বের লাখ লাখ মানুষ। এই কারণে বেড়েছে ইন্টারনেটের ব্যবহার। একই কারণে টিভির সামনেও বিভিন্ন ধারাবাহিক, সিনেমা বা রিয়ালিটি শো দেখার ভিড় বেড়েছে।
  
তবে সাম্প্রতিক একটি গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, অতিরিক্ত সময় টিভির সামনে যারা কাটান, তাদের মধ্যে স্ট্রোক বা  হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি বেড়ে যায় অনেকটাই! এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি করা হয়েছে ইংল্যাণ্ডের বায়ো ব্যাঙ্কের একটি সমীক্ষার রিপোর্টে।

৩৭ থেকে ৭৩ বছর বয়সী মোট ৪ লাখ ৯০ হাজার ৯৬৬ জন মানুষের উপর এই সমীক্ষা চালায় ইংল্যাণ্ডের বায়ো ব্যাঙ্ক। সমীক্ষায় দেখা গেছে, যাদের টিভি দেখার প্রবণতা বেশি বা যারা ঘণ্টার পর ঘণ্টা সময় টিভির সামনে কাটান, তাদের মধ্যে স্ট্রোক বা  হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি অনেক বেশি। গবেষকদের মতে, কোনও ব্যক্তির দিনে ২ ঘণ্টার বেশি টিভি দেখা উচিৎ নয়।

এই গবেষণা দলের প্রধান হামিশ ফস্টার জানান, অতিরিক্ত সময় টিভির সামনে বসে কাটানোর ফলে শুধু স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাক নয়, অনিদ্রা, অবসাদের মতো একাধিক স্বাস্থ্য সমস্যা দেখা দিতে পারে। কোনও ব্যক্তি যদি প্রতিদিন নিয়ম করে টিভি দেখার সময় ঘণ্টা দুয়েকের মধ্যে বেঁধে ফেলতে পারেন এবং এর সঙ্গেই দিনে অন্তত ৩০ মিনিট হাঁটাচলার অভ্যাস করতে পারেন, তাহলে স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি প্রায় ১০ শতাংশ পর্যন্ত কমিয়ে ফেলা সম্ভব। সূত্র- এবিপি আনন্দ ও জিনিউজ।